Breaking

Monday, April 13, 2020

পশ্চিমবঙ্গের উচ্চতম, দীর্ঘতম, প্রাচীনতম ও ব্যস্ততম কিছু জানা-অজানা তথ্য


পশ্চিমবঙ্গের উচ্চতম, দীর্ঘতম, প্রাচীনতম, ব্যস্ততম কিছু জানা-অজানা তথ্য

১.আয়তনে পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম জেলার নাম কি? 
উত্তরঃ দক্ষিণ ২৪ পরগনা (৯,৯৬০ বর্গকিমি)।
২.আয়তনে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষুদ্রতম জেলার নাম কি?
উত্তরঃ কলকাতা (১৮৭.৩৩ বর্গকিমি)।
৩.পশ্চিমবঙ্গের সর্বাধিক জনসংখ্যাবিশিষ্ট জেলা কোনটি?
উত্তরঃ উত্তর ২৪ পরগনা (১,০০,৮২,৮৫২ জন)।
৪. পশ্চিমবঙ্গের সর্বনিম্ন জনবহুল জেলা কোনটি? 
উত্তরঃ কালিম্পং (২,৫১,৬৪২ জন)।
৫. পশ্চিমবঙ্গের উচ্চতম পর্বতশৃঙ্গ নাম কি?
উত্তরঃ সান্দাকফু (উচ্চতা ৩,৬৩৬ মিটার)।
৬.পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সর্বোচ্চ বর্ষণসিক্ত স্থান কোনটি?
উত্তরঃ আলিপুরদুয়ারের বক্সাদুয়ার (বৃষ্টিপাত প্রায় ৩০০ সেমি)।
৭. পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের শুষ্কতম স্থানের নাম কি ?
উত্তরঃ বীরভূম জেলার ময়ূরেশ্বর(বৃষ্টিপাত প্রায় ৯৫ সেমি.)।
৮. পশ্চিমবঙ্গের উষ্ণতম স্থান— পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসােল।
৯.পশ্চিমবঙ্গের শীতলতম স্থান—দার্জিলিং
১০. পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতের সর্বপ্রথম বালিকা বিদ্যালয়ব্যাপটিস্ট মিশন স্কুল (ইন্টালি, কলকাতা)
১১.পশ্চিমবঙ্গের প্রথম কলেজফোর্ট উইলিয়াম কলেজ, কলকাতা, স্থাপিত ১৮০০ খ্রিস্টাব্দে লর্ড ওয়েলেসলি দ্বারা স্থাপিত।
১২.পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মহিলা কলেজ - বেথুন কলেজ, কলকাতা। ১৮৫৯ সালে জন এলিয়ট বেথুন স্থাপিত করে।
১৩. পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মেডিক্যাল কলেজবেঙ্গল মেডিকেল কলেজ (লর্ড উইলিয়াম বেন্টিঙ্ক ১৮৩৫ খ্রিস্টাব্দে স্থাপিত করে (বর্তমান নাম কলকাতা মেডিকেল কলেজ)।
১৪. পশ্চিমবঙ্গের প্রথম ট্রেন চলেহাওড়া ও হুগলির মধ্যে ১৮৫৪ খ্রিস্টাব্দের ১৫ আগস্ট।
১৫. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম রেলস্টেশনহাওড়া রেল স্টেশন(মােট প্ল্যাটফর্ম ২৩টি)।
১৬.পশ্চিমবঙ্গের ব্যস্ততম রেলস্টেশন - শিয়ালদহ (পৃথিবীর মধ্যে ব্যস্ততম)।
১৭. পশ্চিমবঙ্গের দীর্ঘতম প্লাটফর্ম-খগপুর (পশ্চিম মেদিনীপুর/দৈর্ঘ্য ১,০৭ ২.৫০ মিটার)। ২০১৩ সালে এটি ভারতের দীর্ঘতম প্লাটফর্মের তকমা হারিয়েছে।
১৮. পশ্চিমবঙ্গের সর্বোচ্চ উচ্চতায় অবস্থিত রেলওয়ে প্লাটফর্ম - ঘুম (দার্জিলিং/উচ্চতা ২২৫৮ মিটার বা ৭,৪০৮ ফুট)।
১৯. পশ্চিমবঙ্গের প্রথম সংবাদপত্র (ভারতেও প্রথম) - জেমস্ হিকির ‘বেঙ্গল গেজেট' (ইংরেজি ভাষায় রচিত, প্রকাশিত হয় ১৭৮০ খ্রি.)।
১৮. পশ্চিমবঙ্গের প্রথম বাংলা সংবাদপত্রসমাচার দর্পণ (প্রকাশিত :শ্রীরামপুর/১৮১৮ খ্রি.)
১৯. পশ্চিমবঙ্গের যে দৈনিক সংবাদপত্রের সংস্করণ সর্বাধিকআনন্দবাজার পত্রিকা (দৈনিক গড়ে প্রায় ১১ লাখ পত্রিকা বিক্রি হয়)।
২০. পশ্চিমবঙ্গের সর্বপ্রাচীন গ্রন্থাগারউইলিয়াম কেরি লাইব্রেরি (স্থাপিত : ১৮০০ খ্রি./শ্রীরামপুর)।
২১. পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতের বৃহত্তম তারামণ্ডল- বিড়লা প্ল্যানেটোরিয়াম (কলকাতা, স্থা,১৯৬৩ খ্রি)
২২. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম রাজপ্রাসাদ - হাজারদুয়ারি (মুর্শিদাবাদ, নবাব নাজিম হুমায়ুন জা দ্বারা নির্মিত হয়। এটি স্থপতি কলােনেল ডানকাল ম্যাকলয়েড, ১৮৩৭ খ্রি. নির্মাণ সমাপ্ত হয়)।
২৩. পশ্চিমবঙ্গের উচ্চতম স্মৃতিসৌধ - ভিক্টোরিয়া মেমােরিয়াল (উচ্চতা : ১৮৪ ফুট বা ৫৬ মি.)।
২৪. পশ্চিমবঙ্গের উচ্চতম স্তম্ভের নাম কি?
উত্তরঃ শহীদ মিনার (উচ্চতা : ১৫৭ ফুট বা ৪৮ মি.)।
২৫. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম সংগ্রহশালা বা মিউজিয়ামের নাম কি?
উত্তরঃ ইণ্ডিয়ান মিউজিয়াম (স্থাপিত ১৮১৪ খ্রি.)।
২৬. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম চিড়িয়াখানা জুলজিক্যাল গার্ডেনস্ (আলিপুর, কলকাতা, ১৮৭৬ খ্রি.)।
২৭.পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম উদ্ভিদ উদ্যান আচার্য জগদীশ চন্দ্র বােস বােটানিক্যাল গার্ডেন, শিবপুর (হাওড়া, স্থাপিত হয় ২ নভেম্বর ১৭৮৬ খ্রি.)।
২৮. পশ্চিমবঙ্গের প্রাচীনতম জলবিদ্যুৎকেন্দ্র সিদ্ৰাপং, দার্জিলিং (স্থাপিত : ১৮৯৭ সালে)।
২৯. ভারতে তথা পশ্চিমবঙ্গে প্রথম পাতালরেল চালু হয়কলকাতায় (১৯৮৪-র ২৪ অক্টোবর)।
৩০. প্রথম টেলিগ্রাম লাইন পশ্চিমবঙ্গ (তথা ভারতে) প্রথমবার কলকাতা থেকে ডায়মন্ডহারবারে পরীক্ষামূলকভাবে টেলিগ্রাম পাঠানাে হয় ১৮৫০ খ্রিস্টাব্দে। (২০১৩ সালের ১৪ জুলাই ভারতে টেলিগ্রাম পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়)।
৩১. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম মেলা গঙ্গাসাগর মেলা (প্রতিবছর পৌষ সংক্রান্তি বা মকর সংক্রান্তিতে অনুষ্ঠিত হয়, দক্ষিণ ২৪ পরগনার সাগর দ্বীপে অনুষ্ঠিত হয়)।
৩২. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম ফুলবাজার - মল্লিকহাট (হাওড়া/এশিয়ায় বৃহত্তম)।
৩৩.পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম বদ্বীপের নাম কি?
উত্তরঃ সুন্দরবন ব-দ্বীপ অঞ্চল (৭৫,০০০ বর্গকিমি/ভারতের বৃহত্তম ব-দ্বীপ /বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ  নিয়ে বিস্তৃত)।
৩৪. পশ্চিমবঙ্গের দীর্ঘতম নদীর নাম কি?
উত্তরঃ ভাগীরথী-হুগলি নদী। (দৈর্ঘ্য ৫৩০ কিমি)।
৩৫. পশ্চিমবঙ্গের দীর্ঘতম সেতু - রূপনারায়ণ সেতু (দৈর্ঘ : ৩,৩১৩ ফুট, কোলাঘাট)
৩৬. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম ক্যান্টিলিভার সেতু কোনটি?
উত্তরঃ হাওড়া ব্রিজ। ১৯৪৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি হাওড়া ও কলকাতার মধ্যে সংযােগকারী ‘হাওড়া ব্রিজ’জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়। ৭০৫ মি দীর্ঘ ও ৯৭ মি. উঁচু এই ব্রীজ বর্তমানে রবীন্দ্র সেতু’ নামে পরিচিত।
৩৭. পশ্চিমবঙ্গের দীর্ঘতম কেবল ব্রিজবিদ্যাসাগর সেতু (দৈর্ঘ্য ২,৭০০ ফুট/কলকাতা)।
৩৮. পশ্চিমবঙ্গের উচ্চতম গিরিপথজেলেপােলা। (১৩,৯৯৯ ফুট উচ্চতায়)।
৩৯. পশ্চিমবঙ্গের তথা ভারতের প্রথম সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রআসানসােলের জামুরিয়ায়, ২ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন।
৪০. পশ্চিমবঙ্গের পরমাণু শক্তি কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত?
উত্তরঃ পূর্ব মেদিনীপুরের হরিপুরায়।
৪১. পশ্চিমবঙ্গের দীর্ঘতম ব্যারেজের নাম কি?
উত্তরঃ ফারাক্কা ব্যারেজ (গঙ্গার ওপর নির্মিত/দৈর্ঘ্য ২,২৪৫ মিটার)
৪২. পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতের সর্বপ্রাচীন হকি প্রতিযােগিতা - বেটন কাপ (১৮৯৫ সালে প্রথম শুরু)।
৪৩. পশ্চিমবঙ্গের সর্বপ্রাচীন ফুটবল ক্লাবক্যালকাটা ডালহৌসি ক্লাব (স্থাপিত ১৮৮০ খ্রি.)।
৪৪. পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম ক্রীড়াঙ্গনবিবেকানন্দ যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন (১.২০ লক্ষ দর্শক আসন বিশিষ্ট)।
45. পশ্চিমবঙ্গের দীর্ঘতম সেতু কোনটি?
উঃ জয়ী সেতু (তিস্তা নদীর উপরে, কোচবিহার)



No comments:

Post a Comment

কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবে ( কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সময়ের সাথে সাথে উত্তর পরিবর্তন হয়)