Breaking

Tuesday, March 10, 2020

সালোকসংশ্লেষ এবং শ্বসন ( Photosynthesis And Respiration)

সালোকসংশ্লেষ এবং শ্বসন

সালোকসংশ্লেষ প্রশ্ন উত্তর

১. সালোকসংশ্লেষ কাকে বলে?( Definition of photosynthesis)
উত্তর:যে শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়ায় ক্লোরোফিলযুক্ত কোশে সূর্যালোকের উপস্থিতিতে এবং ক্লোরোফিলের সাহায্যে, পরিবেশ থেকে শোষিত জল ও কার্বন ডাই অক্সাইডের রাসায়নিক বিক্রিয়ার ফলে সরল শর্করাখাদ্য(গ্লুকোজ) সংশ্লেষিত হয় এবং উৎপন্ন খাদ্যে সৌরশক্তি রাসায়নিক স্থিতিশক্তি রূপে আবদ্ধ হয় এবং উপজাত বস্তু হিসেবে পরিবেশ থেকে গৃহীত কার্বন ডাই-অক্সাইডের সমপরিমাণ অক্সিজেন ও জল উৎপন্ন হয় তাকে সালোকসংশ্লেষ (photosynthesis) বলে।
সালোকসংশ্লেষের বিক্রিয়াটি সম্পন্ন সমীকরণ :-
                         সূর্যালোক
6CO2+ 12H2O ------- C6H12O6 +6O2+ 6H20
                      ক্লোরোফিল
এই বিক্রিয়াটিতে 6 অণু কার্বন-ডাই-অক্সাইড(CO2) ও 12 অণুর জলের(H2O) রাসায়নিক বিক্রিয়ায় 1 অণু গ্লুকোজ(C6H12O6), 6 অণু জল(H2O) ও 6 অণু অক্সিজেন (H2O) উৎপন্ন হয়েছে।
২. সালোকসংশ্লেষের জন্য উদ্ভিদের কোন অঙ্গটি আদর্শ স্থান হিসেবে বিবেচিত হয়?
উত্তর: পাতা।
৩. ক্লোরোফিলের বর্তমান ধাতব মৌল কোনটি?
উত্তর: ম্যাগনেসিয়াম (Mg)
৪. সালোকসংশ্লেষের ফলে সৃষ্ট গ্লুকোজ অনুর অক্সিজেনের উৎস কোনটি?
উত্তরঃ কার্বন ডাই অক্সাইড (CO2)
৫. সালোকসংশ্লেষকারী অঙ্গানুটির নাম কি ?
উত্তর: ক্লোরোপ্লাস্ট।
৬. সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় উৎপন্ন অক্সিজেনের উৎস কোনটি?
উত্তরঃ জল(H2O)।
৭. সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় উৎপন্ন গ্লুকোজে কার্বন, হাইড্রোজেন ও অক্সিজেনের অনুপাত কত?
উত্তর: C6H12O6 অতএব, 1:2:1
৮. সালোকসংশ্লেষ করতে পারে এমন প্রাণীর নাম বলো।
উত্তর: ইউগ্লিনা, ক্রাইস্যামিবা।
৯. সালোকসংশ্লেষে অক্ষম উদ্ভিদ এর নাম বল।
উত্তরঃ সমস্ত রকম ছত্রাক, স্বর্ণলতা।
১০.সালোকসংশ্লেষে সক্ষম ব্যাকটেরিয়ার নাম কি?
উত্তরঃ রোডোসিউডোমোনাস, রোডোস্পাইরিলাম।
১১. পাতার কোন কলায় সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া সংঘটিত হয়?
উত্তরঃ মেসোফিল কলা।
১২. সালোকসংশ্লেষের আলোক দশা কোথায় সংঘটিত হয়?
উত্তরঃ ক্লোরোপ্লাস্টের গ্রানায়।
১৩. সালোকসংশ্লেষের অন্ধকার দশা কোথায় ঘটে?
উত্তরঃ ক্লোরোপ্লাস্টের স্ট্রোমা।
১৪.ফোটন কণার উপস্থিতিতে জলের আয়নীকরণ প্রক্রিয়াকে কি বলে?
উত্তরঃ ফটোলাইসিস।
১৫. ফটোলাইসিস প্রক্রিয়াটি প্রথম কে পর্যবেক্ষণ করেন?
উত্তরঃ রবিন হিল।
১৬. হিল বিকারক কি?
উত্তরঃ NADP+
১৭. সালোকসংশ্লেষের জন্য উদ্ভিদের শুষ্ক ওজন কি হয়?
উত্তরঃ বৃদ্ধি পায়।
১৮. সালোকসংশ্লেষের জন্য প্রয়োজনীয় কার্বন-ডাই-অক্সাইড কোথায় গৃহীত হয় ?
উত্তরঃ অন্ধকার দশায়।
১৯. সাধারণত কত ডিগ্রি উষ্ণতায় সালোকসংশ্লেষ সম্পন্ন হয়?
উত্তরঃ 35 ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড।
২০. অঙ্গার আত্তীকরণ এর উৎস কি?
উত্তরঃ ATP ( Adenosine Tri Phosphate).
২১.কোন তরঙ্গ দৈর্ঘ্য যুক্ত আলোতে সালোকসংশ্লেষ সবথেকে ভালো হয় ?
উত্তরঃ 650- 700 nm
২২. রাত্রিবেলা উদ্ভিদের শ্বেতসার কোথা থেকে প্রস্তুত হয়?
উত্তরঃ গ্লুকোজ থেকে।
২৩. এনার্জি কারেন্সি কাকে বলে?
উত্তরঃ ATP
২৪. গ্রানামস্থিত কোয়ান্টোজেমের প্রতিটি ক্লোরোফিল অনুর সংখ্যা কত?
উত্তরঃ 200-300 টি।
২৫. সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় গ্লুকোজে সৌরশক্তি কি হিসেবে সঞ্চিত হয়?
উত্তরঃ রাসায়নিক শক্তি হিসেবে।
২৬.শ্বসন কাকে বলে (Definition of Respiration)?
উত্তরঃ যে জৈব-রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় অক্সিজেনের উপস্থিতিতে বা অনুপস্থিতিতে উৎসেচক এর সহায়তায় কোশস্থ খাদ্য জারিত হয়ে সরলতম অংশে বিশ্লিষ্ট হয় এবং খাদ্য স্থৈতিক শক্তি তাপ শক্তিতে ধীরে ধীরে রূপান্তরিত হয় এবং কার্বন ডাই-অক্সাইড(CO2)  উৎপন্ন হয়, তাকে শ্বসন বলে।
            O2( জারণ)
শ্বসনবস্তু ------------ CO2+ H20 + ∆(শক্তির মুক্তি)
             উৎসেচক     সরল যৌগ
(C6H12O6)
২৭. কোন বিজ্ঞানী মাইটোকনড্রিয়া কে কোষের শক্তিঘর হিসাবে চিহ্নিত করেন?
উত্তরঃ সিকেভিৎস।
২৮. সবাত শ্বসনের প্রথম পর্যায়টির নাম কি?
উত্তরঃ গ্লাইকোলাইসিস।
২৯.যে প্রক্রিয়ায় গ্লুকোজ পাইরুভিক অ্যাসিডে পরিণত হয় তাকে কি বলে?
উত্তরঃ EMP পথ।
৩০. গ্লাইকোলাইসিস সংগঠিত হয় কোষের কোথায়?
উত্তরঃ সাইটোপ্লাজমে।
৩১. 1 গ্রাম অনু গ্লুকোজে সম্পূর্ণ জারণে উৎপন্ন শক্তির পরিমাণ কত?
উত্তরঃ 686 কিলোক্যালরি।
৩২. সজীব কোষের প্রধান শ্বসন বস্তু কি?
উত্তরঃ গ্লুকোজ।
৩৩. পরিণত কোষের শ্বসন হার কেমন?
উত্তরঃ কম।
৩৪. পতঙ্গের শ্বাস অঙ্গের নাম কি?
উত্তরঃ শ্বাসনালী বা ট্রাকিয়া এবং শ্বাস ছিদ্র।
৩৫. সবাত শ্বসনের ফলে মোট উৎপন্ন ATP এর সংখ্যা কত?
উত্তরঃ 38 অনু।
৩৬. অতিরিক্ত শ্বাসযন্ত্র কোন প্রাণী দেখা যায়?
উত্তরঃ কই, মাগুর, শিঙি ইত্যাদি জিওল মাছেদের ফুলকা ছাড়াও এক রকমের অতিরিক্ত শ্বাসযন্ত্র থাকে।
৩৭. যে প্রক্রিয়ায় সবুজ উদ্ভিদ O2 গ্রহণ ও CO2 ত্যাগ করে তাকে কি বলে?
উত্তরঃ শ্বসন।
৪০. পায়রার বায়ুথলির সংখ্যা কয়টি ও বায়ুথলির কাজ কি?
উত্তরঃ  ৯ টি। 
পায়রা, বাজ, চিল, ইত্যাদি উড়ন্ত পাখিদের ফুসফুসের সঙ্গে ৯ টি বায়ুথলি বা এয়ার স্যাক (air sac)  যুক্ত থাকে। ক্রমাগত ওড়ার সময় এদের শ্বসনের হার বৃদ্ধি পায়। দ্রুত শ্বসন চালানোর জন্য এদের বাড়তি অক্সিজেন প্রয়োজন হয়। বায়ুথলির মধ্যে এদের প্রয়োজনীয় অক্সিজেন জমা থাকে।
৪১. শীতঘুম কার মধ্যে দেখা যায়?
উত্তরঃ ব্যাঙ।
৪২. অক্সিজেনের অনুপস্থিতিতে যে শ্বসন হয় তাকে কি বলা হয়?
উত্তরঃ অবাত শ্বসন।
৪৩. শ্বাসরঞ্জক কি ও কয়েকটি শ্বাস রঞ্জক এর নাম বল?
উত্তরঃ রক্তে অবস্থিত যে রঞ্জক পদার্থ শ্বাসবায়ু (O2 & CO2) পরিবহন করে, তাকে শ্বাসরঞ্জক বলে। যেমন, হিমোগ্লোবিন, হিমোসায়ানিন প্রভৃতি।
৪৪. সবাত শ্বসনের জন্য কোন গ্যাসের প্রয়োজন হয়?
উত্তরঃ অক্সিজেন (O2)।
৪৫. রক্তে কোন জিনিসটি অক্সিহিমোগ্লোবিন রূপে প্রবাহিত হয়?
উত্তরঃ অক্সিজেন (O2).
৪৬. কোষের ব্যাটারি কাকে বলা হয়?
উত্তরঃATP.
৪৭. পাইরুভিক অ্যাসিড যে প্রক্রিয়ায় সবশেষে উৎপন্ন হয় তাকে কি বলে?
উত্তরঃ গ্লাইকোলাইসিস।
৪৮. অপচিতিমূলক বিপাক ক্রিয়া উদাহরণ কি?
উত্তরঃ শ্বসন।
৪৯. ট্রাকিয়া কোন প্রাণীর শ্বাস অঙ্গ?
উত্তর আরশোলা।
৫০. টিকটিকি প্রধান শ্বাস অঙ্গের নাম কি?
উত্তর ফুসফুস।
৫১. শক্তি উৎপাদনের চাবিকাঠি কাকে বলা হয়?
উত্তর অক্সিজেন (O2)।
৫২. চিংড়ির শ্বাস অঙ্গের নাম কি?
উত্তরঃ বুকগিল বা বই ফুলকা।
৫৩. একটি বায়ুজীবী জীবের উদাহরণ দাও।
উত্তরঃ অ্যামিবা।

দ্বাদশ শ্রেণী
অধ্যায়- সালোকসংশ্লেষ

১. সালোকসংশ্লেষ বা ফটোসিন্থেসিস শব্দটি কে প্রথম প্রচলন করেন?
উত্তরঃ 1898 খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী বার্নেস ( Barnes).
২. সালোকসংশ্লেষ কে উপচিতি বিপাক বলে কেন?
উত্তরঃ সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় সরল যৌগ গ্লুকোজ বা দ্রাক্ষাশর্করা উৎপন্ন হয়, ফলে উদ্ভিদের শুষ্ক ওজন বৃদ্ধি পায় । যে গঠনমূলক বিপাকে জীবদেহের শুষ্ক ওজন বৃদ্ধি পায় তাকে উপচিতিমূলক বিপাক বলে । এই কারণে সালোকসংশ্লেষ একপ্রকার উপচিতি বিপাক।
৩. সালোকসংশ্লেষকে অঙ্গার আত্তীকরণ বলে কেন?
উত্তরঃ সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় বায়ুমণ্ডলের কার্বন ডাই অক্সাইডের(CO2) কার্বন(বা অঙ্গার) গ্লুকোজ(C6H12O6) গঠনের জন্য ব্যবহৃত হয় ।বায়ুমণ্ডলের কার্বন ডাই-অক্সাইড(CO2) থেকে কোশস্থ যৌগে কার্বনের অঙ্গীভূত হওয়াকে অঙ্গার আত্তীকরণ বা কার্বন অ্যাসিমিলেশন বলে। অঙ্গার আত্তীকরণ প্রক্রিয়াটি সালোকসংশ্লেষের সময় ঘটে বলে সালোকসংশ্লেষ কে অঙ্গার আত্তীকরণ বলে।
৪. সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় প্রধান স্থান কি?
উত্তরঃ পাতার মেসোফিল কলা।
৫. কোন আলোয় সবথেকে কম সালোকসংশ্লেষ হয়?
উত্তরঃ বেগুনি আলোয়।
৬. ক্লোরোফিল a- এর রাসায়নিক সংকেত লেখ।
উত্তরঃ C55H72O5N4Mg
৭. ক্লোরোফিল b- এর রাসায়নিক সংকেত লেখ।
উত্তরঃ C55H70O6N4Mg
৮. দুটি ফাইকোবিলিন রঞ্জক এর নাম লেখ।
উত্তরঃ লোহিত ফাইকোএরিথ্রিন ও নীল ফাইকোসায়ানিন।
৯.রঞ্জকতন্ত্রে কোন পদ্ধতির মাধ্যমে একটি রঞ্জক কর্তৃক শোষিত সৌরশক্তি পার্শ্ববর্তী রঞ্জকে পরিবাহিত হয়?
উত্তরঃ LHC ইন্ডাক্টিভ রেজনেন্স।
১০. LHC এর পুরো নাম কি?
উত্তরঃ Light Harvesting Complex.
১১.OEC এর পুরো নাম কি?
উত্তরঃ Oxygen Evolving Complex.
১২. কোয়ান্টাম রিকোয়ারমেন্ট কি?
উত্তরঃ সালোকসংশ্লেষে এক অনু অক্সিজেন নির্গমনে যতগুলি ফোটন বা কোয়ন্টা প্রয়োজন হয়, তাকে কোয়ান্টাম রিকোয়ারমেন্ট বলে ।সালোকসংশ্লেষে কোয়ান্টাম রিকোয়ারমেন্ট 8-10
১৩. একটি ম্যাগনেসিয়াম বিহীন ক্লোরোফিলের নাম লেখ।
উত্তরঃ ফিয়োফাইটিন।
১৪. একটি ভ্রাম্যমাণ ইলেকট্রন বাহক এর নাম লেখ?
উত্তরঃ প্লাস্টোসায়ানিন।
১৫. হ্যাচ ও স্ল্যাক চক্রে প্রথম উৎপন্ন জৈব অ্যাসিডটির  নাম লেখ।
উত্তরঃ 4- কার্বনযুক্ত অক্সালো অ্যাসিটিক অ্যাসিড।
১৬.C2 চক্রে প্রথম উৎপন্ন দুই কার্বন যৌগের নাম লেখ।
উত্তরঃ গ্লাইকোলেট ও গ্লাইঅক্সালেট।
১৭.CAM এর পুরো নাম লেখ।
উত্তরঃ ক্রাসুলেসিয়ান অ্যাসিড মেটাবলিজম ( Crassulacean Acid Metabolism)
১৮. দুটি CAM উদ্ভিদের নাম লেখ।
উত্তরঃ Opuntia basilaris, Zygocactus truncatus.

একাদশ শ্রেণী

অধ্যায়- শ্বসন (Respiration)

১.সর্বাধিক ব্যবহৃত বা প্রাথমিক শ্বসন বস্তুটির নাম কি?
উত্তরঃ গ্লুকোজ।
২.ATP সংশ্লেষের জন্য প্রয়োজনীয় উৎসেচক এর নাম কি?
উত্তরঃ ATP সিন্থেটেজ।
৩. প্রোটোপ্লাজমীয় শ্বসন কাকে বলে?
উত্তরঃ যে শ্বসনে প্রোটিন বা স্নেহ পদার্থ শ্বসনবস্তু হিসেবে ব্যবহৃত হয়, তাকে প্রোটোপ্লাজমীয় শ্বসন বলে।
৪. এক অনু ATP আর্দ্র বিশ্লেষিত হয়ে ADP তে পরিণত হলে কত পরিমান তাপ শক্তি পাওয়া যায়?
উত্তরঃ 7.3 kcal
৫. কেশব চক্রের বিক্রিয়া গুলি কোথায় ঘটে?
উত্তরঃ মাইটোকনড্রিয়ার ধাত্রে ঘটে।
৬. ইলেকট্রন পরিবহন তন্ত্র (ETS) কোথায় সংঘটিত হয়?
উত্তরঃ ইলেকট্রন পরিবহন তন্ত্রের ক্রিয়া মাইটোকনড্রিয়ার অন্তঃপর্দায়  ঘটে।
৭.সবাত শ্বসনে প্রান্তীয় জারক বস্তুটি কি?
উত্তরঃ আণবিক অক্সিজেন (O2).
৮.অ্যাসিটিক অ্যাসিড উৎপাদক ব্যাকটেরিয়ার নাম লেখ।
উত্তরঃ Acetobacter aceti.
৯. দুগ্ধজাত পদার্থ উৎপাদক ব্যাকটেরিয়ার নাম লেখ।
উত্তরঃ Lactobacillus lactis.
১০.সেলুলোজ উৎসেচক উৎপাদক একটি ছত্রাকের নাম লেখ।
উত্তরঃ Aspergillus oryzae.
১১.EMP পথ কাকে বলে?
উত্তরঃ শ্বসনে গ্লাইকোলাইসিস পথটি এম্বডেন, মেয়ারহফ ও পার্নেস নামক তিনজন বিজ্ঞানী প্রথম পর্যবেক্ষণ করায় গ্লাইকোলাইসিস পথকে EMP পথ বলে।
১২. পেশীর ক্লান্তি হয় কেন এবং কিভাবে এই ক্লান্তি দূর করা যায়?
উত্তরঃ অত্যধিক পরিশ্রমের সময় (ব্যায়াম, দৌড়ানো, সাঁতার ইত্যাদি) পেশিকোশের গ্লুকোজ অবাত জারণ বা সন্ধান প্রক্রিয়ায় ল্যাকটিক অ্যাসিড উৎপন্ন করে কোশে সঞ্চিত হয় ফলে পেশি অবসন্ন হয়ে পড়ে। এই অবস্থাকে পেশীর ক্লান্তি বলে। 
কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিলে থেকে ল্যাকটিক অ্যাসিড অপসারিত হয়, ফলে পেশীর ক্লান্তি দূর হয়।
১৩. লেন্টিসেল কাকে বলে?
উত্তরঃ বৃক্ষ গুল্ম প্রভৃতি গাছের কান্ডের ত্বকের বিদীর্ণ যে রন্ধ্র দিয়ে গ্যাসীয় আদান-প্রদান ঘটে তাদের লেন্টিসেল বলে।
১৪. গ্লাইকোলাইসিস পদ্ধতিতে শেষ উৎপাদিত যৌগ গুলি কি?
উত্তরঃ পাইরুভিক অ্যাসিড, NADH2, ATP এবং জল।
১৫.RBC তে ক্রেবস চক্র হয় না কেন?
উত্তরঃ পরিণত RBC তে মাইটোকনড্রিয়া থাকে না বলে ক্রেবস সংঘটিত হয় না।
১৬. আমাদের শরীরে কার্বন ডাই অক্সাইড এর কাজ কি কি?
উত্তরঃ আমাদের শরীরে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের প্রধান কয়েকটি কাজ হলো-1.H2CO3 গঠন, 2. শ্বাস কেন্দ্রকে উদ্দীপিত করা, 3.বৃক্কের সহায়তায় অম্ল ও ক্ষারের সাম্যতা বজায় রাখা।
১৭. শ্বসন একপ্রকার কি?
উত্তরঃ অপচিতি প্রক্রিয়া।
১৮. শ্বসনের সময় কি উৎপন্ন হয়?
উত্তরঃ কার্বন ডাই অক্সাইড।
১৯. শ্বসনের জন্য শ্বসন বস্তু হল-
উত্তরঃ গ্লুকোজ + অক্সিজেন।
২০. কোন ধরনের শ্বসন বস্তু থেকে সর্বাধিক সংখ্যায় ATP উৎপন্ন হয়?
উত্তরঃ গ্লুকোজ।
২১. সন্ধান হল একপ্রকার-
উত্তরঃ অবাত শ্বসন।
২২. সবাত শ্বসনে উৎপন্ন বস্তুটি কোনটি?
উত্তরঃ পাইরুভিক অ্যাসিড।
২৩. অ্যালকোহল এর সন্ধান কিসের উপস্থিতিতে ঘটে?
উত্তরঃ জাইমেজ।
২৪.পেশিতে অবাত শ্বসনে পাইরুভিক অ্যাসিড পরিবর্তিত হয়ে উৎপন্ন করে কি?
উত্তরঃ ল্যাকটিক অ্যাসিড।
২৫. ইস্ট সন্ধান প্রক্রিয়ায় উৎপন্ন হয়-
উত্তরঃ ইথাইল অ্যালকোহল + কার্বন ডাই অক্সাইড।
২৬. অবাত শ্বসন কোষের কোন অংশে ঘটে?
উত্তরঃ সাইটোপ্লাজমে।
২৭.সবাত ও অবাত শ্বসনের মধ্যে সাধারণ পর্যায় কোনটি?
উত্তরঃ গ্লাইকোলাইসিস।
২৮. অবাত শ্বসনে মোট শক্তি(ATP) লাভ হয় - 
উত্তরঃ দুটি ATP.
২৯. প্রাণী কোশে প্রথম পর্যায়ে গ্লুকোজর জারণকে কি বলে?
উত্তরঃ গ্লাইকোলাইসিস।
৩০.RQ একের কম হবে যদি শ্বসন বস্তুটি হয়-
উত্তরঃ ফ্যাট ও প্রোটিন।
৩১.EMP থেকে মোট কত ATP উৎপন্ন হয়?
উত্তরঃ 8 ATP
৩২. পাইরুভিক অ্যাসিড কার্বনের সংখ্যা কত?
উত্তরঃ 3
৩৩. ক্রেবস চক্র হল-
উত্তরঃ সবাত শ্বসন।
৩৪. ক্রেবস চক্রের/ সাইট্রিক অ্যাসিড চক্রের শেষের উৎপন্ন বস্তুটি কি?
উত্তরঃ কার্বন ডাই-অক্সাইড ও জল
৩৫. সবাত শ্বসনে প্রতি অণু গ্লুকোজ থেকে মোট কত অনু জল উৎপন্ন হয়?
উত্তরঃ 6 অনু।
৩৬. কোনটি ETS কে ইলেকট্রনে স্থানান্তর করে?
 উত্তরঃ সাইটোক্রোম।

নবম শ্রেণী
অধ্যায়ঃ সালোকসংশ্লেষ ও শ্বসন

১. কোন প্রাণীর ত্বক মুখ্য শ্বাস অঙ্গের কাজ করে?
উত্তরঃ কেঁচো
২. উদ্ভিদের কোন জৈবনিক ক্রিয়ার ফলে পরিবেশে অক্সিজেন নির্গত হয়?
উত্তরঃ সালোকসংশ্লেষ।
৩. কোন মৌলটি উদ্ভিদে ক্লোরোফিল অনু গঠনে প্রয়োজন?
উত্তরঃ ম্যাগনেসিয়াম।
৪. সবুজ উদ্ভিদে কোন কলা গুলির মধ্যে সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া সাধিত হয়?
উত্তরঃ মেসোফিল কলা।
৫. উদ্ভিদের কোন জৈবনিক প্রক্রিয়ায় পরিবেশে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ হ্রাস পায়।
উত্তরঃ সালোকসংশ্লেষ ।
৬. কোন প্রাণীর প্রধান শ্বাস অঙ্গ ত্বক?
উত্তরঃ কেঁচো, জোক।
৭. শ্বসনের অঙ্গানুর নাম কি?
উত্তরঃ মাইটোকন্ড্রিয়া।
৮. অবাত শ্বসন কোষের কোথায় ঘটে?
উত্তরঃ কোষের সাইটোপ্লাজমে ঘটে।
৯. কোন অঙ্গটি তিমির প্রধান শ্বাস অঙ্গ?
উত্তরঃ ফুসফুস।
১০. সবাত শ্বসন হয় না এমন একটি জীবের উদাহরণ দাও?
উত্তরঃ ঈস্ট, মিথেন ব্যাকটেরিয়া।
১১. ট্রাকিয়া কোন প্রাণীর শ্বাস অঙ্গ?
উত্তরঃ পতঙ্গ শ্রেণীর প্রাণী- আরশোলা প্রজাপতি ফরিং ইত্যাদি।
১২. এমন একটি জীবের উদাহরণ দাও যার দেহে অবাত শ্বসন সম্পাদিত হয়?
উত্তরঃ মিথেন ব্যাকটেরিয়ার সালফার ব্যাকটেরিয়া।
১৩. কুমিরের শ্বাস অঙ্গ নাম কি?
উত্তরঃ ফুসফুস।
১৪. শ্বসন কোথায় হয়?
উত্তরঃ কেবলমাত্র সজীব কোষে ঘটে।
১৫. উদ্ভিদের শ্বসন কিভাবে ঘটে?
উত্তরঃ উদ্ভিদের পত্ররন্ধ্র, লেন্টিসেল, কিউটিকল, শ্বাসমূল, এপিব্লেমা ইত্যাদির মাধ্যমে পরিবেশ থেকে অক্সিজেন শোষণ করে। এই অক্সিজেন ব্যাপন প্রক্রিয়ায় সমস্ত দেশগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। অক্সিজেন কোশস্থ খাদ্য গ্লুকোজকে জারিত করে জল ও কার্বন ডাই অক্সাইড এ বিশ্লিষ্ট করে এবং তাপ শক্তি নির্গত করে।
১৬. সবাত শ্বসন কোষের কোথায় হয়?
উত্তরঃ এরকম শ্বসন কোষের সাইটোপ্লাজমে ও মাইট্রোকন্ডিয়া ঘটে।
১৭. চিংড়ির শ্বাস অঙ্গের নাম কি?
উত্তরঃ বুক গিল বা বই-ফুলকা।
১৮. অ্যালভিওলাই কোথায় থাকে ?
উত্তরঃ ফুসফুসে।
১৯. শ্বাসমূল কোন উদ্ভিদে দেখা যায়?
উত্তরঃ সুন্দরী,গরাণ , গেও ইত্যাদি লবণাম্বু বা ম্যানগ্রোভ জাতীয় উদ্ভিদ।

2 comments:

কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবে ( কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সময়ের সাথে সাথে উত্তর পরিবর্তন হয়)