Breaking

Friday, June 17, 2022

ব্যারোমিটার কাকে বলে? ফর্টিন ব্যারোমিটার কি এবং ব্যারোমিটারের সাহায্যে কিভাবে আবহাওয়ার পূর্বাভাস পাওয়া যায়?

ব্যারোমিটার কাকে বলে?

যে যন্ত্রের সাহায্যে কোনো স্থানের বায়ুমণ্ডলীয় চাপ মাপা হয় তাকে ব্যারোমিটার বলে।
বায়ুর চাপ মাপতে ফর্টিন ব্যারোমিটার ব্যবহার করা হয়।

ফর্টিন ব্যারোমিটার

টরিসেলি পরীক্ষার কিছু সংশোধন ও পরিবর্তন করে ফর্টিন ব্যারোমিটার তৈরি করা হয়েছে।

ফর্টিন ব্যারোমিটারের গঠন

(i) ফর্টিন ব্যারোমিটার যন্ত্রে 1 বর্গসেমি প্রস্থচ্ছেদ যুক্ত 1 মিটার লম্বা শক্ত কাচনল নিয়ে নলটিকে শুষ্ক ও বিশুদ্ধ পারদ দিয়ে পূর্ণ করে খোলা মুখটিকে বায়ু নিরুদ্ধভাবে একটি স্যাময় চামড়ার থলির মধ্যে উপুড় করে রাখা হল। 
(ii) বাইরের আঘাতে যাতে কাচনল ও স্যাময় থলি অক্ষত থাকে তার জন্য সমগ্র কাচনল ও স্যাময় চামড়ার থলিটিকে একটি পেতলের নলের মধ্যে ঢেকে রাখা হয়। পেতল নলের উপরের কিছুটা অংশ এমনভাবে কেটে রাখা হয় যাতে নলের ভেতরের পারদ বাইরে থেকে দেখা যায়। পারদতল মাপার জন্য পেতল নলের ওই অংশে মূল ও ভার্নিয়ার স্কেল কাটা থাকে। যার সাহায্যে পারদ শীর্ষের সঠিক মাপ নেওয়া যায়।
(iii) বায়ুর চাপের পরিবর্তনের জন্য কাচনলে পারদের উচ্চতার পরিবর্তন ঘটে ফলে চামড়ার থলিতে পারদতলের পরিবর্তন হয়। সঠিক চাপ মাপার জন্য চামড়ার থলির পারদস্তম্ভের উচ্চতা একটি নির্দিষ্ট উচ্চতায় আনার জন্য থলির নীচে একটি স্ক্রু (S) লাগানো থাকে। পারদ পাত্রের পারদতলের উপর একটি আইভরি পিন এমনভাবে লাগানো থাকে যাতে পিনের অগ্রভাগ সর্বদা স্কেলের শূন্য দাগের সঙ্গে একরেখায় থাকে। চাপ মাপার সময় ত্রুটি (S) ঘুরিয়ে চামড়ার থলির পারদতলকে উঠিয়ে বা নামিয়ে আইভরি পিনের অগ্রভাগের সংস্পর্শে এনে পেতলনলের খোলা জায়গাতে পারদস্তম্ভের উচ্চতার পাঠ নেওয়া হয়।
(iv) সমগ্র যন্ত্রটিকে উপরের আংটা (H)-এর সাহায্যে যন্ত্রটিকে দেওয়ালে ঝুলিয়ে রাখা হয়। একটি হাতল (V)-এর সাহায্যে স্কেলকে ওঠানো-নামানো করা হয়।

ফর্টিন ব্যারোমিটারের কার্যপ্রণালী

(i) যেখানের বায়ুমণ্ডলের চাপ মাপতে হবে সেখানে আংটার সাহায্যে যন্ত্রটিকে খাড়াভাবে ঝুলিয়ে রাখা হয়। (ii) এবার স্ক্রু (S) ঘুরিয়ে পারদ থলির পারদতলকে এমন অবস্থায় আনতে হবে যেন পারদতল আইভরি পিনের অগ্রভাগকে স্পর্শ করে। 
(iii) এ অবস্থায় পারদ থলির পারদতল স্কেলের শূন্য দাগের সঙ্গে মিলে যাবে। এবার মূল স্কেল ও ভার্নিয়ার স্কেলের সাহায্যে পারদস্তম্ভের উচ্চতা নির্ণয় করা হয়। 
(iv) পারদস্তম্ভের উচ্চতা থেকে বায়ুমণ্ডলের
চাপ পাওয়া যায়।

ব্যারোমিটারের সাহায্যে আবহাওয়ার পূর্বাভাস

i) ব্যারোমিটারের পারদত্তয় ধীরে ধীরে নামলে বোঝা যায় বায়ুর চাপ কমছে, বায়ুতে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বাড়ছে। ফলে বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। 
(ii) পারদস্তম্ভ হঠাৎ নীচে নেমে গেলে বোঝা যায় নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ঝড় ওঠার সম্ভাবনা। (iii) ব্যারোমিটারের পারদস্তম্ভ ধীরে ধীরে উপরের দিকে উঠলে বোঝা যায় আবহাওয়া শুষ্ক যাবে। (iv) ব্যারোমিটারের পারদস্তম্ভ হঠাৎ বেড়ে গেলে বোঝা যায় বায়ুতে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ খুব কমে গেছে। প্রবল শুষ্ক বায়ু বইবে।

ব্যারোমিটার বিষয়ে প্রশ্ন উত্তর

1. বায়ুর চাপ মাপার যন্ত্রের নাম কি?
উঃ ব্যারোমিটার।
2.বায়ুর চাপ মাপা হয় কোন এককে?
উঃ পাস্কাল ,মিলিবার ‌
3. বায়ুর চাপ কাকে বলে?
উঃ কোন স্থানের একক ক্ষেত্রফলের উপর বায়ুমণ্ডলের লম্বভাবে যে ওজন পরে তাকে বায়ুমন্ডলের চাপ বলে।
4. প্রতি বর্গ সেন্টিমিটার বায়ুর চাপ কত? 
উঃ প্রায় 0.379 কিলোগ্রাম।
5. ব্যারোমিটারের পারদ স্তম্ভের উচ্চতা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকলে আবহাওয়া কেমন হবে?
উঃ ব্যারোমিটারের পারদ স্তম্ভের উচ্চতা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকলে আবহাওয়া শুষ্ক ও পরিষ্কার থাকবে।
6. ব্যারোমিটারের পাঠ হঠাৎ কমে গেলে কী বোঝা যায়?
উঃ ব্যারোমিটারের পাঠ হঠাৎ কমে গেলে বোঝা যায় নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে ফলে ঝড় ওঠার সম্ভাবনা।
7. ব্যারোমিটারের পাট হঠাৎ বেড়ে গেলে কি হবে?
উঃ বোঝা যায় বায়ুতে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ খুব কমে গেছে। প্রবল শুষ্ক বায়ু বইবে।
8. ব্যারোমিটার আবিষ্কার করেন কে?
উঃ বিজ্ঞানী টরিসেলি।
9. ফর্টিন ব্যারোমিটার কে আবিষ্কার করেন?
উঃ বিজ্ঞানী টরিসেলি।
10. বায়ুশূন্য স্থানে ব্যারোমিটার নিয়ে গেলে কি ঘটবে.বায়ুর চাপ মাপার যন্ত্রের নাম কি?
উঃ বায়ুশূন্য স্থানে বায়ুর চাপ না থাকায় ব্যারোমিটারের নলে পারদ পাত্র থেকে পারদ উপরে উঠবে না।

আরো পড়ুন-
1. টরিসেলির পরীক্ষা বর্ণনা করো।
2. যৌগিক পদার্থ কাকে বলে? যৌগিক পদার্থের বৈশিষ্ট্য গুলি কি কি?
3. পদার্থের অবস্থার পরিবর্তনের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর

No comments:

Post a Comment

কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবে ( কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সময়ের সাথে সাথে উত্তর পরিবর্তন হয়)