Breaking

Monday, January 31, 2022

 প্রোক্যারিওটিক কোষ ও ইউক্যারিওটিক কোষের পার্থক্য

বৈশিষ্ট্য প্রোক্যারিওটিক কোশ বা আদি কোশ ইউক্যারিওটিক কোশ বা আদর্শ কোশ বা প্রকৃত কোশ
1. আকার প্রােক্যারিওটিক কোশ তুলনামূলকভাবে ছােট (1-10μm)। ইউক্যারিওটিক কোশ তুলনামূলকভাবে বড় (5-100μm)।
2. প্রকৃতি প্রােক্যারিওটিক কোশ কোশ অনুন্নত এবং সরল। ইউক্যারিওটিক কোশ উন্নত ও অপেক্ষাকৃত জটিল।
3. নিউক্লিয় পর্দার উপস্থিতি নিউক্লিয়াস অঞ্চলটি (নিউক্লয়েড)নিউক্লিয় পর্দা (নিউক্লিয়ার মেমব্রেন) দিয়ে ঘেরা নয়। নিউক্লিয়াস অঞ্চলটি নিউক্লিও পর্দা দিয়ে ঘেরা।
4. ক্রোমোজোমের সংখ্যা এই কোশে একটি মাত্র ক্রোমােজোম থাকে। এই কোশে একাধিক ক্রোমােজোম থাকে।
5. নিউক্লিওলাসের উপস্থিতি এই কোশে নিউক্লিয়াসে নিউক্লিওলাস থাকে না। এই কোশে নিউক্লিয়াসে নিউক্লিওলাস উপস্থিতি থাকে।
6. পর্দা ঘেরা কোশ অঙ্গাণু উপস্থিতি এই কোশে রাইবােজোম নামে পর্দাবিহীন কোশঅঙ্গাণু থাকে। এই কোশে পর্দাঘেরা কোশ অঙ্গাণুগুলি থাকে।
7. রাইবোজোম 70S প্রকৃতির। 80S প্রকৃতির।
8. কোশ বিভাজন বিভাজন, উপবৃদ্ধি অথবা কোরকোদগম পদ্ধতিতে কোশ বিভাজন হয়। মাইটোসিস কিংবা মিয়ােসিস পদ্ধতিতে কোশ বিভাজন হয়।
..

উপরের বর্ণনা থেকে যেসব প্রশ্নের উত্তর করা যেতে পারে- 
1. আদি কোষ ও প্রকৃত কোষের মধ্যে পার্থক্য লেখো।
2. প্রোক্যারিওটিক কোশ ও ইউক্যারিওটিক কোশের তিনটি পার্থক্য লেখ।

No comments:

Post a Comment

কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবে ( কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সময়ের সাথে সাথে উত্তর পরিবর্তন হয়)