Breaking

Wednesday, June 10, 2020

1. রেচন কাকে বলে?
উঃ জীবদেহে যে বিপাক ক্রিয়ার ফলে উৎপন্ন অপ্রয়ােজনীয় ক্ষতিকারক উপজাত দ্রব্যসমূহ জৈবিক ক্রিয়ার মাধ্যমে দেহ থেকে অপসারিত হয় অথবা অদ্রাব্য কোলয়েড কণা হিসেবে দেহের কোনও অংশে সাময়িকভাবে সঞ্চিত থাকে, সেই জৈবনিক ক্রিয়াকে রেচন বলে।
2. উদ্ভিদ ও প্রাণীর নাইটোজেনবিহীন রেচন পদার্থের নাম কি ?
উঃ উদ্ভিদের নাইট্রোজেনবিহীন রেচন পদার্থ : গাঁদ, রজন, তরুক্ষীর, ধাতব কেলাস ইত্যাদি। এবং
প্রাণীদের নাইট্রোজেন বিহীন রেচন পদার্থ গুলি হল কার্বন ডাই-অক্সাইড, কিটোনবডি ।
3. উদ্ভিদ ও প্রাণীদের নাইট্রোজেনযুক্ত রেচন পদার্থের নাম কি?
উঃ নাইট্রোজেনযুক্ত রেচন পদার্থ : উদ্ভিদের উপক্ষার (নিকোটিন, কুইনাইন, ডাটুরিন, রেসারপিন)
এবং প্রাণীদের ইউরিয়া, অ্যামােনিয়া, ইউরিক অ্যাসিড, বিলিরুবিন, বিলিভারডিন প্রভৃতি হল নাইট্রোজেনযুক্ত রেচন পদার্থ।
4. উদ্ভিদ ও প্রাণীদের কার্বনযুক্ত রেচন পদার্থের নাম কি?
উঃ উদ্ভিদের ট্যানিন এবং প্রাণীদের CO2
5.মূত্র কী? 
উঃ মূত্র হল মেরুদণ্ডী প্রাণীদের জলীয় রেচন পদার্থ। স্বাভাবিকে মূত্র পরিষ্কার থাকে , ফিকে হলুদবর্ণের এবং গন্ধযুক্ত (aromatic odour)। বৃক্কের নেফ্রনের মধ্যে মূত্র সৃষ্টি হয় এবং বৃক্ক থেকে নিঃসৃত হয়ে গবিনীর মাধ্যমে বাহিত হয়ে মূত্রাশয়ে সঞ্চিত হয়ে প্রয়ােজনকালে মূত্রনালীর মাধ্যমে দেহের বাইরে নির্গত হয়।
6.মূত্রের উপাদান গুলি কি কি ?
মূত্রের উপাদান (Composition of urine) : একজন প্রাপ্তবয়স্ক লােকের প্রতিদিন প্রায় 1500 cc বা 1 লিটার মূত্র উৎপন্ন ও নিঃসৃত হয়। ঐ পরিমাণ মূত্রে জল ছাড়া প্রায় 50 gm কঠিন পদার্থ থাকে। কঠিন পদার্থের মধ্যে থাকে নানারকম অজৈব ও জৈব পদার্থ থাকে।
7.মূত্রের প্রধান জৈব ও অজৈব পদার্থগুলি কি কি ?
মূত্রের প্রধান অজৈব পদার্থগুলি হল : সােডিয়াম ক্লোরাইড, পটাসিয়াম ক্লোরাইড, সালফেট, ফসফেট, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন ইত্যাদি।
এবং মূত্রের প্রধান জৈব পদার্থগুলি হল : ইউরিয়া, অ্যামােনিয়া, ইউরিক অ্যাসিড, ক্রিয়েটিনিন, হিপপিউরিক অ্যাসিড, কিটোন-বডি, অ্যাসিটোন ইত্যাদি।
8.প্রাণীদের রেচনে ফুসফুসের ভূমিকা কি?
প্রাণীদের রেচনে ফুসফুসের ভূমিকা (Lungs) : ফুসফুস হল মুখ্যত শ্বাসযন্ত্র। কিন্তু ফুসফুস, গ্লুকোজ ও ফ্যাট দহনের ফলে কার্বন ডাই-অক্সাইড এবং জলীয় বাষ্প নিঃশ্বাসের সময় নাসারন্ধ্র দিয়ে দেহের বাইরে নিষ্কাশিত করে রেচনে সহায়তা করে। ফুসফুস ঘন্টায় প্রায় 18 লিটার CO2 এবং দিনে প্রায়-400 ml জল নিঃশ্বাসের মাধ্যমে নির্গত করে।
9.প্রাণীদের রেচনে যকৃতের ভূমিকা কি ?
প্রাণীদের রেচনে যকৃতের ভূমিকা (Liver) : যকৃৎ হল মানব দেহের সবচেয়ে বড় পৌষ্টিক গ্রন্থি। যকৃতের মধ্যে হিমােগ্লোবিন বিশ্লিষ্ট হয়ে বিলিরুবিন, বিলিভারডিন, লেসিথিন রেচন পদার্থ সৃষ্টি করে। এই রেচন পদার্থ পিত্তরসের মাধ্যমে অন্ত্রে আসে এবং মলের সাহায্যে দেহ থেকে নির্গত হয়।

উপক্ষারের বিভিন্ন উৎস ও অর্থনৈতিক গুরুত্ব

উপক্ষারের বিভিন্ন উৎস ও অর্থনৈতিক গুরুত্ব
উপক্ষার উৎস অর্থকরী গুরুত্ব
কুইনাইন সিঙ্কোনা গাছের বাকলে ম্যালেরিয়ার ওষুধ তৈরি হয়।
রেসারপিন সর্পগন্ধা গাছের মূলে উচ্চ রক্তচাপ কমানোর ঔষধ তৈরি হয়।
ডাটুরিন ধুতুরা গাছের পাতাও ফলে হাঁপানির ওষুধ তৈরি হয়।
নিকোটিন তামাক গাছের পাতায় এটি মাদকদ্রব্য হিসাবে ব্যবহৃত হয়।
স্ট্রিকনিন নাক্সভোমিকা বা কুচেলা গাছের বীজে পেটের পীড়ার ওষুধ তৈরি হয়।
মরফিন আফিং গাছের কাঁচা ফলের ত্বকে ব্যথা-বেদনা উপশম ও গাঢ়  নিদ্রার ঔষধ তৈরি হয়।
ক্যাফিন কফি গাছের বীজে ব্যথা-বেদনা উপশমকারী ওষুধ তৈরি হয়।
অ্যাট্রোপিন বেলেডোনা গাছের মূল পাতায় এ থেকে উৎপন্ন ঔষধ চোখের তারারন্ধ প্রসারণ রক্তচাপ বৃদ্ধিতে
এবং সিমপ্যাথেটিক স্নায়ুকে উদীপ্ত করতে ব্যবহৃত হয়।
এমিটিন ইপিকাক গাছের মূলে পেটের গোলযোগ, বমি ইত্যাদির ওষুধ রূপে ব্যবহৃত হয়।
ডিজিটালিন ডিজিটালিস গাছের পাতায় হৃদপিন্ডের স্বাভাবিক কর্মদক্ষতা ফিরিয়ে আনার কাজে ব্যবহৃত হয়।
থেইন চা গাছের পাতায় অবসাদ দূর করতে সাহায্য করে।
কোকেইন কোকো গাছের পাতায় ব্যথা উপশমকারী ওষুধ রূপে ব্যবহৃত হয়।
Important MCQ for competitive exam
1. অ্যামিবার রেচন অঙ্গের নাম কি?
উঃ সংকোচনশীল গহ্বর
2. সবুজ গ্রন্থি কোন প্রাণীর রেচন অঙ্গ ?
উঃ চিংড়ি
3.শামুকের রেচন অঙ্গের নাম লেখ।
উঃ বৃক্ক
4.মানুষের নেফ্রনের গ্লোমেরুলাসে যে রক্ত জালিকা থাকে তার উভয় প্রান্তে কি থাকে?
উঃ উভয় প্রান্তেই ধমনী থাকে।
5.উদ্ভিদের নাইট্রোজেন বিহীন বর্জ্য পদার্থ কোনটি?
উঃ রজন।
6. রাফাইড কি?
উঃ ক্যালসিয়াম অক্সালেটের কেলাস।
7.মরফিন কোথায় পাওয়া যায়?
উঃ আফিম গাছের কাঁচা ফলের ত্বকে। 
8.পাইন গাছ থেকে কোন্ গুরুত্বপূর্ণ রেচন পদার্থ পাওয়া যায়?
উঃ রজন।
9. মানুষের প্রতি বৃক্কে রেচনের সংখ্যা কত?
উঃ 10 লক্ষ।
10. ইউরিয়া সংশ্লেষ কোথায় ঘটে ?
উঃ যকৃতে।
11. মানব বৃক্কের মােট গড় ওজন কত?
 উঃ 125-170 gm
12.ব্যথা-বেদনা উপশমে কোন উপক্ষার প্রয়ােজন?
উঃ ক্যাফিন।
13. গ্লোমেরুলাস কোন অঙ্গে পাওয়া যায়?
উঃ বৃক্কে।
14. উদ্ভিজ্জ রেচন পদার্থ হিসেবে নিকোটিনের উৎস কি?
উঃ তামাক গাছের পাতা।
15. কিডনি বা বৃক্কের গঠনগত কার্যগত একক এর নাম কি?
উঃ নেফ্রন।
16. বিভিন্ন প্রাণীদের রেচন অঙ্গের নাম:- 
বিভিন্ন প্রাণীদের রেচন অঙ্গের নাম
প্রাণীর নাম রেচন অঙ্গের নাম
অ্যামিবা এককোষী প্রাণীর নির্দিষ্ট কোন রেচন অঙ্গ থাকে না এদের সঙ্কোচী গহ্বর
এবং কোষ পর্দা রেচনে সহায়তা করে।
চ্যাপ্টা কৃমি ( প্লানেরিয়া, ফিতা কৃমি) ফ্লেমকোষ বা শিখাকোশ।
কেঁচো, জোক, পেরিপেটাস নেফ্রিডিয়া
পতঙ্গদের ( আরশোলা, ফড়িং, প্রজাপতি , মশা ইত্যাদি।) ম্যালপিজিয়ান নালিকা ‌।
চিংড়ি সবুজ গ্রন্থি বা শুঙ্গ গ্রন্থি।
মাকড়সা ও কাঁকড়া বিছে কক্সাল গ্রন্থি
শামুক, ঝিনুক এবং মাছ থেকে স্তন্যপায়ী পর্যন্ত সমস্ত মেরুদন্ডী প্রাণীদের বৃক্ক বা কিডনি।

No comments:

Post a Comment

কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবে ( কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সময়ের সাথে সাথে উত্তর পরিবর্তন হয়)