Breaking

Friday, December 31, 2021

মহাবিদ্রোহ বা সিপাহী বিদ্রোহের ব্যর্থতার কারণ

মহাবিদ্রোহের ব্যর্থতার কারণ গুলি লেখ।
উঃ ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দে মহাবিদ্রোহে ভারতবাসী তথা ভারতীয় সিপাহিরা সর্বশক্তি প্রয়ােগ করলেও শেষ পর্যন্ত এই বিদ্রোহ নানা কারণে ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়। যথা:

(১) আঞ্চলিক সীমাবদ্ধতা : উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, রােহিলখণ্ড, অযােধ্যা, বাংলা ও বিহারের একাংশ অর্থাৎ মহাবিদ্রোহ মূলত পূর্ব পাঞ্জাব থেকে পশ্চিম বিহার পর্যন্ত অঞ্চলেই সীমাবদ্ধ ছিল। অর্থাৎ আলিক সীমাবদ্ধতা বিদ্রোহের শক্তিহীনতার অন্যতম প্রধান কারণ।

(২) জনসমর্থনের অভাব : ঝাসি, অযােধ্যা, দিল্লি প্রভৃতি স্থানে মহাবিদ্রোহ জনসমর্থন লাভ করলেও গােয়ালিয়ার, নেপাল, হায়দ্রাবাদ, ভূপাল, যােধপুর, পাতিয়ালা ও ঝিন্দ প্রভৃতি অঞ্চলের রাজা এমনকি সাধারণ মানুষ পর্যন্ত ব্রিটিশদের প্রতি সহানুভূতিশীল ছিল।

(৩) রক্ষণশীলতা : ভারতীয়দের রক্ষণশীলতা ও প্রতিক্রিয়াশীল মনােভাব বিদ্রোহের ব্যর্থতার অন্যতম কারণ বলে অনেক ঐতিহাসিক মনে করেন।

(৪) সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যের অভাব : মহাবিদ্রোহের কোনাে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ও কর্মপন্থা নেতারা জনগণের সামনে তুলে ধরতে পারেননি যা বিদ্রোহের গতি শ্লথ করে দেয়। মহাবিদ্রোহের ভারতীয় নেতৃবর্গ আত্মবিশ্বাস ও বীরত্বের সাথে বিদ্রোহ পরিচালনা করলেও ইংরেজ সেনাপতিদের মতাে তারা রণনিপুণতা দেখাতে পারেননি। ফলে বিদ্রোহীদের মধ্যে সুযােগ্য নেতার অভাব দেখা দেয়।

(৫) নেতাদের মধ্যে সংহতির অভাব : ব্যক্তিগত স্বার্থ ও সংকীর্ণতা দ্বারা পরিচালিত হওয়ায় বিদ্রোহী নেতাদের মধ্যে সংহতির অভাব ছিল যা তাদের সাফল্যের অন্তরায় ছিল।

(৬) আধুনিক অস্ত্রশস্ত্রের অভাব : ঐতিহাসিক প্রমােদ সেনগুপ্তের মতে, ব্রিটিশরা মহাবিদ্রোহ দমনে উন্নত অস্ত্রশস্ত্র ও আধুনিক যুদ্ধ প্রণালীর সাহায্য নিলেও ভারতীয় সিপাহিরা পুরাতন অস্ত্রশস্ত্র ও রণকৌশল অবলম্বন করেছিল।

(৭) যােগাযােগের অভাব : ইংরেজ আমলে প্রবর্তিত রেলপথ, টেলিগ্রাফ প্রভৃতি ব্যবস্থা সরকারের করায়ত্ত হওয়ায় ভারতীয় সিপাহিরা তা ব্যবহার করতে পারেনি। তাই ভারতীয়দের গতিবিধি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হওয়া সরকারের পক্ষে যতটা সহজ ছিল, সিপাহিদের পক্ষে যােগাযােগ রাখা ততটা সহজ হয়নি।

(৮) ব্রিটিশের কূটনীতি : মহাবিদ্রোহের সময় কূটনীতি প্রয়ােগ ও নানা খেতাব প্রদানের মাধ্যমে ব্রিটিশ-কোম্পানি একদিকে যেমন শিখ, গােখা, রাজপুত জাতির সমর্থন লাভ করে, অন্যদিকে মধ্যবিত্ত শিক্ষিত সম্প্রদায়কেও বিদ্রোহ থেকে বিরত রাখে যা তাদের বিদ্রোহ দমনে সহায়তা করে। এ ছাড়াও ব্রিটিশ সরকার কূটনীতির আশ্রয় নিয়ে বিভিন্ন পুরস্কার, খেতাব বা উপাধি ও চাকরির লােভ দেখিয়ে বহু ভারতীয়কে এই বিদ্রোহে যােগদানে বিরত রেখেছিল। ফলে সর্বাত্মক রাজনৈতিক, সামরিক, সাংগঠনিক ঐক্য ভারতীয়দের মধ্যে গড়ে ওঠেনি।

(৯) নিয়মানুবর্তিতার অভাব : উপযুক্ত কারণ ব্যতীতও বলা যায় যে, সাম্রাজ্যবাদী ব্রিটিশ শক্তির বিরুদ্ধে সফল আন্দোলন পরিচালনার জন্য যে নিয়মানতা, আনুগত্য ও শৃঙ্খলা দরকার তা ভারতীয়দের মধ্যে ছিল না। তাই মহাবিদ্রোহ ব্যর্থ হওয়ার জন্য বিভিন্ন কারণ দায়ী হলেও ঐতিহাসিক রমেশচন্দ্র মজুমদার মূলত মহাবিদ্রোহ ব্যর্থ হবার পিছনে সাধারণত লক্ষ্যের অভাবকেই দায়ী করেছেন।

No comments:

Post a Comment

কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবে ( কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স সময়ের সাথে সাথে উত্তর পরিবর্তন হয়)